<< ল্যাপটপ বা কম্পিউটার স্লো ? হাতের কাছেই সমাধান

ল্যাপটপ ও কম্পিউটারের ব্যবহার প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে। তবে, কাজ করতে করতে একসময় আপনার ব্যবহার করা কম্পিউটারটিতে নানান রকমের সমস্যাও দেখা দিতে পারে। সেরকম একটি সমস্যা হলো, কাজের সময় হয় কম্পিউটার বন্ধ হয়ে যাচ্ছে অথবা স্লো হয়ে যাচ্ছে। তবে ছোট ছোট কিছু নিয়ম, যা মেনে চললেই কম্পিউটারের গতি বাড়বে।

সফটওয়ার আপডেট: সব সময় উচিত প্রতিটি কম্পিউটারের সফ্টওয়্যার আপডেট রাখা। কারণ, অনেকসময় সফ্টওয়্যারের মধ্যে বেশ কিছু সমস্যা থাকে। যার কারণে কম্পিউটার স্লো হয়। সফ্টওয়্যার আপডেট করলে সেই সমস্যাগুলো সমাধান হয়ে যায়। ফলে কম্পিউটার স্লো হয় না।

ডেটা ব্যাকআপ: বিশ্বের যত দামি ল্যাপটপ হোক না কেন যত দিন যাবে তত স্লো হতে থাকবে। অথবা ক্রাশ করবে। এর অন্যতম প্রধান কারণ ডেটা স্টোর। কম্পিউটারে যত দিন যাবে তত ডেটা স্টোর হতে থাকবে। ফলে কম্পিউটারের তথ্য ধরে রাখার স্থান ছোটো হতে থাকবে এবং স্লো হতে থাকবে।

তাই এই সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য, গুরুত্বপূর্ণ তথ্য কোনো ক্লাউডে সঞ্চয় করে রাখতে হবে। অথবা বাহ্যিক কোনো হার্ড ড্রাইভে তা স্টোর করে রাখতে হবে। পাশাপাশি অপ্রয়োজনীয় তথ্য সম্পূর্ণভাবে ডিলিট করে দিতে হবে।

সঠিকভাবে কম্পিউটার বন্ধ করা: অনেকের সঠিকভাবে কম্পিউটার বন্ধ করেন না। কাজ শেষ হওয়ার পর হয় স্লাইড বন্ধ করে দেন, অথবা সরাসরি পাওয়ার বোতাম টিপে কম্পিউটার বন্ধ করে দেন। কিন্তু এতে কম্পিউটার ধীরে ধীরে নষ্ট হয়ে যায়। কারণ, একটা কম্পিউটার অন থাকার অর্থ ব্যাক এন্ডে প্রচুর অ্যাপ্লিকেশন বা বিভিন্ন প্রোগ্রাম চালু থাকা।

আচমকা পাওয়ার বাটন অফ করে দিলে সেই প্রোগ্রামগুলো সঠিকভাবে বন্ধ হয় না। উল্টো সেগুলো ড্যামেজ হতে শুরু হয়। ফলে কম্পিউটার স্লো হয় অথবা কোনো একটি অ্যাপ স্লো হতে থাকে। তাই কাজের শেষে কম্পিউটার সঠিকভাবে বন্ধ করা দরকার। প্রয়োজনে স্লিপ মোড করা যেতে পারে। এই বিষয়ে নজর দিতে হবে।

ল্যাপটপ কিংবা কম্পিউটার গতিশীল করতে এই তিনটি সাধারণ বিষয় মনে রাখলেই চলবে। পুরোনো হলেও কম্পিউটারের গতি স্লো হবে না। নতুন কম্পিউটারের মতো দ্রুত গতিতে চলবে।

শেয়ার করলে অনুপ্রাণিত হবো...

Leave a Reply

Your email address will not be published.