<< মঙ্গলে দেড় ঘণ্টা ভূমিকম্প!

মঙ্গল গ্রহ নিয়ে দীর্ঘদিন কাজ করছে মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা।  সংস্থাটির মনুষ্যবিহীন মহাকাশ যান ইনসাইট মঙ্গল গ্রহ থেকে তিনটি বড় ভূমিকম্পের তথ্য পাঠিয়েছে। এসব ভূমিকম্প পর্যালোচনা করে মঙ্গল সম্পর্কে অনেক তথ্য সংগ্রহ করতে পারবে বিজ্ঞানীরা।

সর্বশেষ ১৮ সেপ্টম্বর মঙ্গলে ৪.২ মাত্রার ভূমিকম্প হয়। যা ৯০ মিনিট (দেড় ঘণ্টা) পর্যন্ত স্থায়ীত্ব হয়।
এরআগে অবশ্য ২৫ আগস্টও মঙ্গল গ্রহে দুটি বড় ভূকিম্পের তথ্য পৃথিবীতে পাঠিয়েছিল ইনসাইট। ওই ভূমিকম্প দুটির একটির মাত্রা ছিল ৪.২ ও আরেকটি ছিল ৪.১ মাত্রার।

সায়েন্স টেক ডেইলি জানিয়েছে, এর আগে ২০১৯ সালে এর চেয়ে বড় ভূমিকম্প হয়। যার মাত্রা ছিল ৩.৭ রিখটার স্কেল। তবে এই ভূমিকম্পটি তার চেয়ে ৫ গুন শক্তিশালী।  এর আগে ২০১৮ সালের নভেম্বরে মঙ্গলে ভূমিকম্প হয়।

মঙ্গলের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া গেলে বিজ্ঞানীরা ধারণা করতে পারবেন জন্মের সময় মঙ্গলগ্রহ কেমন ছিল। এসব বিষয় সম্পর্কে পুরোপুরি ধারণা লাভ করতে পারলে মহাবিশ্বের অন্য কোথাও প্রাণের অস্তিত্ব আছে কি না, তা জানার পথে কয়েক ধাপ এগোতে পারবেন বিজ্ঞানীরা।

শেয়ার করলে অনুপ্রাণিত হবো...

Leave a Reply

Your email address will not be published.