<< করোনা টিকা না নেওয়ায় ৩ কর্মীকে বরখাস্ত করল সিএনএন

করোনা টিকা না নিয়ে অফিসে উপস্থিত হওয়ায় ৩ কর্মীকে বরখাস্ত করেছে প্রভাবশালী মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন। গত সপ্তাহে এই পদক্ষেপ নেয় সংবাদমাধ্যমটি। বৃহস্পতিবার (৫ আগস্ট) অফিসের স্টাফদের কাছে পাঠানো আভ্যন্তরীণ এক নথিতে এই তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

আলোচিত ওই নথিটি রয়টার্সের হাতে পৌঁছেছে। নথির তথ্য অনুযায়ী, সিএনএন’র প্রধান জেফ জাকার অফিসের কর্মীদের বলেছেন- এই ধরনের কর্মকাণ্ডের (টিকা না নেওয়া) বিরুদ্ধে আমাদের প্রতিষ্ঠান জিরো টলারেন্স অবস্থানে রয়েছে। আর এই কারণে অফিসে আসতে হলে এবং বাইরে গিয়ে অন্যদের সঙ্গে কাজ করতে হলে সবাইকেই টিকা নিতে হবে।

নথিতে আরও বলা হয়েছে, ‘সংবাদমাধ্যমের বার্তা বিভাগ, খেলাধুলা বিষয়ক বিভাগ এবং স্টুডিওতে কাজ করা সকলকে অবশ্যই করোনা টিকা নিতে হবে। আমরা মাসের পর মাস ধরে পরিষ্কারভাবে এই কথাটিই বলে আসছি। তাই টিকা নেওয়ার বিষয়ে কোনো দ্বিধা-দ্বন্দ্ব থাকা উচিত নয়।’

সিএনএন জানিয়েছে, করোনা মহামারির মধ্যে অফিসে প্রবেশের জন্য টিকা গ্রহণের প্রমাণপত্র থাকার বিষয়টি আনুষ্ঠানিক বা বাধ্যতামূলক করা হতে পারে।

জেফ জাকার ওই নথিততে আরও বলেছেন, সেপ্টেম্বরের ৭ তারিখ থেকে সকল কর্মীকে অফিসে শারীরিকভাবে উপস্থিত হয়ে কাজে যোগ দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হলেও আগামী অক্টোবর মাসের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত তা স্থগিত করেছে সিএনএন।

তিনি জানিয়েছেন, যুক্তরাষ্ট্রে সাম্প্রতিক সময়ে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের লস অ্যাঞ্জেলস, ওয়াশিংটন ডিসি এবং আটলান্টা কার্যালয়ে উপস্থিত থেকে যারা কাজ করবেন, তাদের সবাইকে মাস্ক পরার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

তবে টিকা না নিয়ে অফিসে আসার কারণে কর্মীদের বরখাস্তের ঘটনা কোন কার্যালয়ে ঘটেছে, সেটা প্রকাশ করা হয়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স। বার্তাসংস্থাটি বলছে, সিএনএন’র বেশিরভাগ অফিসই বর্তমানে খোলা রয়েছে। তবে করোনা টিকার উভয় ডোজ সম্পন্ন করা কর্মীরাই কেবল স্বেচ্ছায় অফিসে বসে কাজ করা সুযোগ পাচ্ছেন।

শেয়ার করলে অনুপ্রাণিত হবো...

Leave a Reply

Your email address will not be published.