<< ফারাক্কার পানি বন্ধের হুঁশিয়ারি বিজেপি নেতার

দুর্গাপূজা চলাকালে ও পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বাড়ি ঘরে হামলার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন বিজেপি নেতা শুভেন্দু অধিকারী। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তিনি। বাংলাদেশে চলমান হিংসা বন্ধ না হলে ফারাক্কার পানি ও পেট্রাপোল সীমানা বন্ধের হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

মঙ্গলবার বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘরে হামলার প্রতিবাদে মশাল মিছিল করে বিজেপি। আসানসোলের বিএনআর মোড় থেকে এ মিছিল শুরু হয়ে ভগৎ সিং মোড়ে শেষ হয়। সেই মিছিলে নেতৃত্ব দেন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে উপস্থিত ছিলেন জিতেন্দ্র তেওয়ারিসহ অন্যান্য বিজেপি নেতা।

মিছিল শেষে বাংলাদেশের ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন শুভেন্দু অধিকারী। সেখানে তিনি বলেন, অবিলম্বে এ ঘটনায় জড়িতদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া হোক। বর্বরোচিত আক্রমণ বন্ধ না হলে ফরাক্কার জল বা পেট্রাপোল সীমানা… ( পূর্ণ কথা না বলে হুঁশিয়ারি) হুমকি নয়, প্রয়োজনে যতদূর যেতে হয় যাব।

এর আগে বাংলাদেশের ঘটনা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি দেন শুভেন্দু। তাছাড়া কলকাতায় বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনের অফিসে ডেপুটি হাইকমিশনারের সঙ্গেও দেখা করেন। সেখানে শুভেন্দু বলেছিলেন, তারা সনাতনের ভোটে জিতেছেন, তাই তারা দায়বদ্ধ। যেমন দলের কাছে দায়বদ্ধ, ঠিক তেমনই হিন্দুদের কাছেও দায়বদ্ধ। যদি বাংলাদেশে হিংসা বন্ধ না হয়, তাহলে হিলি আর পেট্রোপোলে গিয়েও কর্মসূচি পালনের কথা বলেন তিনি।

এছাড়া শুভেন্দু বাংলাদেশে হিংসা নিয়ে রাজ্য সরকারের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করেন। দেশের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে  মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মন্তব্য করতে শোনা যায়, সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলাদেশের হিংসা নিয়ে কেন মন্তব্য করেননি, তা নিয়ে কটাক্ষ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, কুমিল্লায় তাণ্ডবের ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে এরই মধ্যেই শনাক্ত করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বাকি অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার করা হবে বলেও আশ্বাস দেন তিনি। আসাদুজ্জামান জানান, অভিযুক্ত এক ব্যক্তি বার বার তার অবস্থান পরিবর্তন করছে। এক স্থান থেকে অন্যত্র পালিয়ে বেড়াচ্ছে। তবে দ্রুত ওই অভিযুক্তকে আইনের আওতায় আনা হবে।

শেয়ার করলে অনুপ্রাণিত হবো...

Leave a Reply

Your email address will not be published.