<< আফগানিস্তানে নিষিদ্ধ হচ্ছে গান-বাজনা

তালেবানের হাতে শাসন শুরু হওয়া আফগানিস্তান নিয়ে বিশ্বজুড়েই চাপা উত্তেজনা দেখা যাচ্ছে। আফগানিস্তানের নাগরিকদের মধ্যেও দেখা যাচ্ছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। তবে বেশিরভাগ নাগরিকই মনে করছেন তালেবানের কট্টর শাসনের মুখে চ্যালেঞ্জে পড়ে যাবে দেশটির স্বাভাবিক জীবনযাত্রা৷

তবে, এরই মধ্যে ঘোষণা এলো আফগানিস্তানে নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছে গান-বাজনা। তালেবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, তালেবানদের শাসন চলাকালীন আফগানিস্তানে সংগীতের অনুমোদন থাকবে না। মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা জানান তিনি।

তিনি আর বলেন, ইসলামে সংগীত নিষিদ্ধ। আমরাও চাই না। আমরা চাই জোর করে কিছু চাপানোর আগেই মানুষ নিজেরাই সংগীত এড়িয়ে চলতে শুরু করবে।

১৯৯৬-২০০১ পর্যন্ত তালেবান শাসনে আফগানিস্তানে সংগীত, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র কঠোরভাবে নিষিদ্ধ ছিল। আইন অমান্যকারীদের ভয়াবহ শাস্তির মুখে পড়তে হত। এরপর তালেবান শাসনের অবসান ঘটলে দেশটিতে ব্যাপক হারে সংগীত চর্চার প্রসার ঘটে। গড়ে উঠে জাতীয় সংগীত প্রতিষ্ঠানও। পুরুষদের পাশাপাশি ব্যাপক হারে নারীরাও অংশ নিতে থাকেন সংগীতে।

শেয়ার করলে অনুপ্রাণিত হবো...

Leave a Reply

Your email address will not be published.